কিভাবে ই-জিপি রেজিষ্ট্রেশন করা যায়? পর্ব-২


E-Gp Registration


আজকে আমি দেখাবো যে কিভাবে ই-জিপি রেজিষ্ট্রেশন সম্পূর্ন করবেন।



আগের পর্ব যারা পাননি তারা এই লিংকে ক্লিক করুন তারপর ২য় পর্বটি বুঝতে পারবেন বা সম্পূর্ন করতে পারবেন। পূর্বে পর্ব না দেখলে আপনি এই পর্বের কিছুই বুঝবেন না। তাই এই লিংকে ক্লিক করে দেখে নিন।



চলুন শুরু করি ই-জিপি রেজিষ্ট্রেশনের শেষ ধাপ।



এখন আপনাদের কোম্পানির পূর্ণাঙ্গ তথ্য পূরণ করতে দেওয়া হবে। আমাকে অনুসরন করুনঃ



Company Details: 


ক) Company Registration Number (কোম্পানির রেজিষ্ট্রেশন নং)- এখানে আপনার কোম্পানির রেজিষ্ট্রেশন নং উল্লেখ করতে হবে।

খ) Company Name (কোম্পানির নাম)- রেজিষ্ট্রেশনের কাগজপত্রনুযায়ী কোম্পানীর নাম ইংরেজীতে উল্লেখ করতে হবে।

গ) Company Name in Bangla (কোম্পানির নাম বাংলায়)- রেজিষ্ট্রেশনের কাগজপত্রনুযায়ী কোম্পানীর নাম বাংলায় উল্লেখ করতে হবে।

ঘ) Company Legal Status (কোম্পানির আইনি অবস্থা)- আপনাকে বক্স থেকে যেকোন একটি নির্বাচন করতে হবে। নিচে সেই তালিকা দেওয়া হলঃ

Public Limited - যদি আপনার কোম্পানিটি পাবলিক লিমিটেড কোম্পানি হয় তাহলে এটার উপরে ক্লিক করুন।
Private Limited - যদি আপনার কোম্পানিটি প্রাইভেট লিমিটেড কোম্পানি হয় তাহলে এটার উপরে ক্লিক করুন।
Proprietorship - যদি আপনার কোম্পানিটি মালিকানাধিন কোম্পানি হয় তাহলে এটার উপরে ক্লিক করুন।
Partnership - যদি আপনার কোম্পানিটি অংশিদারী কোম্পানি হয় তাহলে এটার উপরে ক্লিক করুন।
Government Undertaking - যদি আপনার কোম্পানিটি বাংলাদেশ সরকারের মালিকানাধীন কোম্পানি হয় তাহলে এটার উপরে ক্লিক করুন।
ঙ) Company's Year of Establishment (কোম্পানির প্রতিষ্ঠাকাল)- আপনাকে এ বক্সে কোম্পানির সাল উল্লেখ করতে হবে।

চ) Tax Identification Number (ট্যাক্স সনাক্তকরণ নং)- প্রযোজ্য ক্ষেত্রে পূরণ করুন। বাংলাদেশের বাইরের কোম্পানি হলে; Other Document, নির্বাচন করুন; নাম্বার টাইপ করুন ।



ছ) Nature of Business (ব্যবসার ধরণ)- 'Select Category'-তে ক্লিক করুন। ক্লিক করলে নতুন উইন্ডো খুলবে সেখানে আপনার ব্যবসার ধরননুযায়ী বক্স এ টিক দিয়ে ব্যবসা সম্পর্কিত শ্রেনীতে চিহ্ণিত করুন। আপনি এখানে একাধিক শ্রেনী নির্বাচন করতে পারবেন। 

জ) Trade License Issue Date (ট্রেড লাইসেন্স প্রদানের তারিখ)- এখানে আপনি ট্রেড লাইসেন্স থেকে লাইসেন্স প্রদানের তারিখ নিয়ে ক্যালেন্ডার থেকে তারিখ মিলিয়ে দিয়ে দিন।

ঝ) Trade License Expiry Date (ট্রেড লাইসেন্সে এর মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ)- এখানে আপনি ট্রেড লাইসেন্স থেকে লাইসেন্স এর মেয়াদ উত্তীর্ণের তারিখ নিয়ে ক্যালেন্ডার থেকে তারিখ মিলিয়ে দিয়ে দিন।

ঞ) Registered Office Address (রেজিস্টার্ড অফিসের ঠিকানা)- নিম্নে পূরনকৃত চিত্রনুযায়ী তা পূরন করুন
ট) Corporate Office Address (কর্পোরেট অফিসের ঠিকানা)- কর্পোরেট অফিসের ঠিকানা এবং ট্রেড লাইসেন্স এ উল্লেখিত ঠিকানা যদি একই হয় তাহলে বক্স এ টিক দিয়ে অগ্রসর হন। আর যদি একই না হয় তাহলে সকল তথ্য দিন।
সব তথ্য দেওয়া হয়ে গেলে Save বাটনে ক্লিক করুন। তারপর ব্যক্তিগত তথ্য প্রদানের পৃষ্ঠায় চলে যাবে।





Personal Details: 


Personal Details (ব্যক্তিগত তথ্য)- এই বক্সে আপনার কোম্পানির মূল কর্মচারীর সকল ব্যক্তিগত তথ্য দিতে হবে। যিনি কোম্পানির পক্ষে ই-জিপি পোর্টাল এর সকল কার্যক্রমে অংশগ্রহন এবং পরিচালনা করবে।
সব তথ্য দেওয়া হয়ে গেলে Save বাটনে ক্লিক করুন। তারপর Supporting Document (সহায়ক ডকুমেন্ট সমূহ) প্রদানের পৃষ্ঠায় চলে যাবে।



Supporting Document :



Supporting Document (সহায়ক ডকুমেন্ট সমূহ)- এখানে আপনাকে আপনার রেজিষ্ট্রেশনের ধরণনুযায়ী সার্পোটেট ডকুমেন্ট সমূহ আপলোড করে রেজিষ্ট্রেশন প্রক্রিয়া সমাপ্ত করতে হবে। 



মনেরাখবেন, রেজিষ্ট্রেশন করার জন্য আপনাকে পূর্বেই ব্যাংকে টাকা জমা দিতে হবে (সেই ব্যাংক কথায় পাবেন প্রথম অংশে বলা হয়েছে) তারপর যে সব ডকুমেন্ট যেমনঃ কোম্পানির রেজিষ্ট্রেশনের কপি, ট্রেড লাইসেন্স, ভ্যাট (বিন), ট্যাক্স, ব্যক্তিগত তথ্য দানকারীর জাতীয় পরিচয় পত্রের কপি, টাকা জমা দেওয়ার স্লিপ, এক কোপি ছবি আর আপনার প্রয়োজনীয় কাগজপত্র Browse এ ক্লিক করে আপলোড করুন। মনে রাখবেন সেই সব ফাইল গুলো যেন ২ মেগাবাইটের এবং পিডিএফ ফাইলের হয়। 



দৃষ্টি আকর্ষন : সকল কার্যাবলী সম্পন্ন করার পর তথ্যসমূহ ই-জিপি তে আপলোড করার পর সে সকল কাগজের সত্যায়িত ফটোকপি সেপিটিইউ-তে পোষ্ট বা কুরিয়ারের মাধ্যমে পাঠাতে হবে।



আমাদের সাথেই থাকুন আর কমেন্ট এ জানান যে আপনাদের আর কি কি বিষয়ে আমরা তথ্য দিতে পারি। যদি ভাল লাগে আপনারা এই পোষ্ট টি শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুজগ করে দিন।




ই-জিপি কি? কিভাবে ই-জিপি রেজিষ্ট্রেশন করা যায়? পর্ব-১

 E-Gp Registration


ই-জিপি কি?



গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের জাতীয় ই-গভর্নমেন্ট প্রকিউরমেন্ট (ই-জিপি) পোর্টাল (http://eprocure.gov.bd ) পরিকল্পনা মন্ত্রণালয়ের সেণ্ট্রাল প্রকিউরমেন্ট টেকনিক্যাল ইউনিট (সিপিটিইউ) কর্তৃক তৈরী, গৃহীত ও পরিচালিত। ই-জিপি সিস্টেমটি সরকারের ক্রয়কারী সংস্থা (পিএ) এবং ক্রয়কারী (পিই)-সমূহের ক্রয়কার্য সম্পাদনের জন্য একটি অনলাইন প্লাটফর্ম।

এটি একমাত্র ওয়েব পোর্টাল যেখান থেকে এবং যার মাধ্যমে ক্রয়কারী সংস্থা এবং ক্রয়কারী প্রতিষ্ঠানসমূহ নিরাপদ ওয়েব ড্যাসবোর্ডের মাধ্যমে ক্রয় সংক্রান্ত যাবতীয় কার্যাবলী সম্পাদন করতে পারবে। ই-জিপি সিস্টেম সিপিটিইউ'তে স্থাপিত ডাটা সেণ্টারে ধারণ করা হয়েছে। ইণ্টারনেট ব্যবহার করে সরকারের ক্রয়কারী সংস্থা এবং ক্রয়কারী প্রতিষ্ঠান ই-জিপি ওয়েব পোর্টালে প্রবেশ করতে পারবে।

সরকারী ক্রয়কাজে এই সংস্কার কার্যক্রম বিশ্বব্যাংকের সহায়তায় বাস্তবায়নাধীন 'পাবলিক প্রকিউরমেন্ট রিফর্ম প্রজেক্ট-২' এর আওতায় সম্পাদিত হয়েছে। এই পদ্ধতি ক্রমান্বয়ে সরকারের সকল প্রতিষ্ঠান কর্তৃক ব্যবহৃত হবে বিধায় এর মাধ্যমে সরকারী ক্রয় প্রক্রিয়ায় দরদাতাগণের অবাধ অংশগ্রহণ ও সমসুযোগ সৃষ্টি হবে; এবং ক্রয় প্রক্রিয়ায় দক্ষতা, স্বচ্ছতা ও জবাবদিহিতা নিশ্চিত হবে।

রাকিব টেক এর পক্ষ থেকে আজ আপনাদের শিখাবো কিভাবে ই-জিপি রেজিষ্ট্রেশন করা যায়। যা যা লাগবে ই-জিপি রেজিষ্ট্রেশনে-

যে কোন ব্রাউজার (যেমনঃ গুগোল ক্রোম, মাইক্রোসফট ইডিজি, মজিলা ফায়ারফক্স)


  • একটি ই-মেইল আইডি (জি-মেইল, ইয়াহু)
  • আট সংক্ষার পাসওয়ার্ড
  • ভেরিফিকেশন কোর্ড (আপনি যেই মেইলটি দিয়ে রেজিষ্ট্রেশন করবেন সেই মেইলে এই কোর্ডটি দিতে হবে।
  • কোম্পানি রেজিষ্ট্রেশন নাম্বার।
  • কোম্পানি এর অফিসের ঠিকানা।
  • কোম্পানি খোলার সাল (কোম্পানি রেজিষ্ট্রেশন এর পত্রে পাবেন)
  • কোম্পানির ট্রাক্স এর নাম্বার।
  • কোম্পানির ব্যবসার ধরন।
  • কোম্পানির ট্রেড লাইসেন্স।
  • জাতীয় পরিচয় পত্র এ র কপি।
  • ই-জিপি রেজিষ্ট্রেশনের পে-স্লিপ (যে কোন ব্যাংক এই হতে পারে অবশ্য সেই ব্যাংক কে ই-জিপি রেজিষ্ট্রেশনের আওতায় থাকতে হবে।)
  • কোম্পানি যে ব্যাক্তির নামে রেজিষ্ট্রেশন করা তার পাসপোর্ট সাইজের ছবি।



নিবন্ধনের ধাপসমূহ



ওয়েব ব্রাউজারে ক্লিক করে address বারে www.eprocure.gov.bd লিখে কী-বোর্ডের Enter এ চাপ দিন।
এতে ওয়েবসাইটি খুলবে। "New User Registration" button এ ক্লিক করুন।

"New User Registration- Login Account Details" শীর্ষক একটি নতুন ওয়েব পেইজ খুলবে।           New User Registration- Login Account Details"-এ বিস্তারিত তথ্য সমূহ (উদাহারন সরূপ দেওয়া রয়েছে)   
আপনার নিজস্ব ই-মেইল আইডি এবং নতুন ০৮ (আট) সংক্ষার থাকতে হবে। উদাহরন হিসাবে দেখুন-  



 চাহিত তথ্যগুলো লিখুন। Terms and Conditions গুলো পড়ুন এবং সেগুলো গ্রহণ করার জন্য ফরমের শেষ প্রান্তে Check box এ ক্লিক করুন। এবার 'Submit' বাটনে ক্লিক করুন। 
আপনি যে ই-মেইল আইডি ব্যবহার করেছেন তাতে রেজিস্ট্রেশন যাচাই কোড (Verification Code) সহ ই-জিপি সিস্টেম থেকে স্বয়ংক্রিয়ভাবে একটি বার্তা পাবেন। আপনার নিজস্ব ই-মেইল খুলে তা দেখতে পাবেন আপনি।

  
                                        
পৃষ্ঠা খুলবে।বার্তাটির সাথে প্রদত্ত web link এ ক্লিক করুন। ই-মেইল যাচাই এর জন্য ই-জিপি ওয়েবসাইটে একটি 

ই-জিপি পদ্ধতি হতে প্রাপ্ত যাচাই কোডটি কপি করে যথাস্থানে প্রদান করুন। 'Submit' বাটনে ক্লিক করুন।
                                                                                                                            Complete Registration Process (রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করুন)

No; Thanks I will Register Later On (না। ধন্যবাদ, আমি পরবর্তীতে রেজিষ্ট্রেশন করব) 


দৃষ্টি আকর্ষনঃ আপনাকে রেজিষ্ট্রেশনের জন্য ৭২ ঘন্টার মধ্যে


সমস্ত কিছুর তথ্য একাউন্টে তুলে ধরতে হবে। ৭২ ঘন্টার মধ্যে

সম্পূর্ণ  না করলে তা বাতিল হয়ে যাবে। পুনোরায় তা আবার

নতুন করে সম্পূর্ণ করতে হবে।



আমরা দ্বিতীয় পাঠে শিখবো কিভাবে রেজিষ্ট্রেশন সম্পন্ন করবো.......



আমাদের সাথেই থাকুন আর কমেন্ট এ জানান যে আপনাদের আর কি কি বিষয়ে আমরা তথ্য দিতে পারি। যদি ভাল লাগে আপনারা এই পোষ্ট টি শেয়ার দিয়ে সবাইকে দেখার সুজগ করে দিন।




কিভাবে অনলাইন এ ই-টিন সার্টিফিকেট তৈরী করবেন

E-TIN(টি.আই.এন
E-Tin বলতে কি বুঝি?

TIN (টি.আই.এন) বলিতে Tax payers Identification number বা করদাতা সনাক্তকরণ নম্বর

বুঝায়। টি.আই.এন ১২ অংকের একটি  কম্পিউটার জেনারেট নম্বর।



কখন ট্যাক্স দিতে হবে?

কারো আয় যদি ২.৫০ (দুই লক্ষ পঞ্চাশ হাজার) এর বেশি হয় তাহলে ট্যাক্স দিতে হবে।



কি কি কাজে E-Tin (ই-টিন) সার্টিফিকেট প্রয়োজন হয়?

যে কোন কাজ করতে গেলেই এখন টিন সার্টিফিকেট বাধ্যতামূলক। ব্যাংকিং কার্যক্রম থেকে শুরু করে সবক্ষেত্রেই এখন E-TIN (টিন) সার্টিফিকেট লাগে। যেমনঃ কোম্পানী রেজিস্ট্রেশন, ঠিকাদারী লাইসেন্স, ড্রাগ লাইসেন্স সহ ইত্যাদি তে।



রাকিব টেক এর পক্ষ থেকে আজ আমরা শিখাবো কিভাবে খুব সহজে কোন অতিরিক্ত টাকা খরচ না করে খুব সহজে আপনি নিজের E-Tin (টিন) সার্টিফিকেট ঘরে বসে নিজেই তৈরি করতে পারবেন। তাহলে চলুন শুরু করি।

প্রথমে যে কোন একটি ব্রাউজার ওপেন করবো। আমি ক্রোমো ব্রাউজার ওপেন করছি। তাররপর আয়কর নিবন্ধনের যে লিংক এ যেতে ক্লিক করুন এই ওয়েব সাইড এ প্রবেশ করতে হবে। 

প্রবেশ করার পরে আমাদের Registration সম্পন্ন করতে হবে।

Registration এ ক্লিক করলে একটি ফর্ম খুলবে। এই ফর্মে User ID তে একটি User ID দিতে হবে। এখানে আমি User ID হিসাবে অনারের ফোন নাম্বারটি User ID হিসাবে ব্যবহার করছি।

Password অপশনে আট সংখ্যার Password দিতে হবে।



Security Question অপশনে অনেকগুলি অপশন দেওয়া থাকবে সেখান থেকে আপনার মন মত অপশন সিলেক্ট করে Security Answer দিতে হবে। 


Country অপশনে অবশ্যই বাংলাদেশ সিলেক্ট থাকতে হবে এবং মোবাইল নম্বর দিতে হবে।

তারপর অনারের যদি E-mail থাকে তাহেলে E-mail টি দিতে হবে।

তারপর Verification letters এ কেপচার কোর্ডটি লিখে Register এ ক্লিক করতে হবে।


তারপর আপনার মোবাইলে NBR থেকে একটি এক্টিভিশন কোর্ড পাঠাবে সেই কোর্ডটি দিয়ে এক্টিভ বাটোনে ক্লিক করতে হবে। তাহলেই রেজিস্ট্রেশন কমপ্লিট হয়ে যাবে।

তারপর অবশ্যই লগ ইন বাটনে ক্লিক করে লগ ইন কার নিতে হবে।



এখানে ইউজার আইডি হিসাবে আমরা যে অনারের মোবাইল নম্বর ইউজ করেছিলাম সেই মোবাইল নম্বর টি দিয়ে দিব এবং তার সাথে পাসওয়ার্ডটিও দিয়ে দিব এবং লগ ইন করবো।



লগ ইন হয়ে গেলে এখন আমাদের রেজিট্রেশন ফ্রমটি আনতে হবে। 
সে জন্য আমরা নিচে থেকে টিন অ্যাপ্লিকেশনে ক্লিক করতে পারি বা বাম পাশ থেকে টিন অ্যাপ্লিকেশনে ক্লিক করে অ্যাপ্লিকেশন ফর্মটি আনতে হবে। এই ফর্ম পুরোনের সময় আপনাকে অবশ্যই স্টার দেওয়া ঘরগুলি পূরন করতে হবে।

এখানে করদাতার ধরনে (a) তে Individual>Bangladeshi সিলেক্ট করতে হবে। (b) তে Individual>Bangladeshi>Having NID সিলেক্ট করতে হবে।

রেজিস্ট্রেশন টাইপ/ধরন এ নিউ রেজিস্ট্রেশন সিলেক্ট করতে হবে।

Main Source of Income/ আয়ের প্রধান উৎসে আপনি যে দরনের ব্যবসা করবেন তা সিলেক্ট করবেন। আমি এখানে ব্যবসার ধরন Business এ কাজ করবো তাই এখানে আমি তাতে ক্লিক করবো।



Business এ ক্লিক করার পর আরো দুটি ম্যানু এ্যাড হবে। এখানে Location of Main source of Income এ আমাদের লোকেশন দেখিয়ে দিতে হবে। তারপর Go TO Next এ ক্লিক করতে হবে। এবার আপনি রেজিস্ট্রেশনের Preview দেখতে পাবেন। কোন ভুল থাকলে ঠিক করে নিন।




এবার Submit এ ক্লিক করুন। হয়ে গেল আপনার E-Tin.







কিভাবে BIN সার্টিফিকেট অনলাইনে খুব সহজে কারো কোন সাহায্য ছাড়াই করে ফেলতে পারবেন তার Tips ও আমরা খুব শীঘ্রই আপনাদেরকে জানিয়ে দিবো। সাথেই থাকুন www.rakibtech.com এর।

অন পেজ এসইও এর ধাপসমূহ


অফ পেজ এসইও, backlink কিভাবে করে, মাত্র একটি পদ্ধতি অবলম্বন করে নিস সাইটের অন পেজ এসইও করুন পারফেক্টভাবে, ব্যাকলিংক তৈরি করা, অনপেজ এসইও, ওয়েবসাইট seo, ডু ফলো ব্যাকলিংক কি,



অন পেজ এসইও এর ধাপসমূহ

আপনার ওয়েবসাইট আপনার ওয়েবসাইট র্যাঙ্ক করার জন্য  দুটি পদ্ধতি রয়েছে প্রথমটি হল অনপেজ এসইও এবং দ্বিতীয়টি হল অফ পেজ এসইও  দুটি পদ্ধতি ব্যবহার করে আপনার ওয়েবসাইট আপনার ওয়েবসাইট র্যাঙ্ক করতে পারবেন

সুতরাং, আপনি অনলাইনে এসইও নিবন্ধগুলির কয়েকশ - যদি না শতশত - পড়েছেন। আপনি আপনার ওয়েবসাইটের এসইও উন্নত করার জন্য অসংখ্য টিপস এবং কৌশল হজম করেছেন। আপনি এমনকি (ওভার) আপনার ব্যবসায়িক লক্ষ্যগুলির সাথে সামঞ্জস্য করে এমন একটি SEO কৌশল বিকাশে সহায়তা করার জন্য সেই স্ব-ঘোষিত "বিশেষজ্ঞ" প্রদান করেছেন।

তবে সমস্ত পড়ার এবং শেখার এবং কৌশল করার পরে, এটি আপনার উপরে ছড়িয়ে পড়ে: আপনি আসলে কিছুই করেননি। সম্ভবত আপনাকে ভয় দেখানো হয়েছে।

নির্বিশেষে, অন-পেজ এসইও এর কথা, আপনার পা টেনে আনার কোনও অজুহাত নেই। অন পৃষ্ঠায় এসইও আপনার ওয়েবসাইটটিতে অসংখ্য নতুন দর্শক - এবং গ্রাহক - আনার ক্ষমতা রাখে।
অন পেজ এসইও সম্পূর্ণরূপে আপনার উপর নির্ভর করে: আপনি প্রতিটি পেজ বিষয় এবং / অথবা লক্ষ্যটি কী হবে তা স্থাপন করতে পারেন। আপনি যে পেজ জন্য লক্ষ্য শ্রোতা সিদ্ধান্ত নিতে হবে। এবং আপনি যে কীওয়ার্ড এবং বাক্যাংশগুলিকে ফোকাস করতে চান তা চয়ন করতে পারেন।

আপনাকে যা করতে হবে তা ' শুরু করা এবং আপনাকে সহায়তা করার জন্য আমরা এই গাইডটি তৈরি করেছি।

অন পেজ এসইও কি?

অন পেজ এসইও (যা সাইটের উপরে এসইওও বলা হয়) ' আপনার ওয়েবসাইটের বিভিন্ন ফ্রন্ট-এন্ড এবং ব্যাক-এন্ড উপাদানগুলি অনুকূল করে তোলার প্রক্রিয়া যাতে এটি সার্চ ইঞ্জিনগুলিতে আসে এবং নতুন ট্র্যাফিক নিয়ে আসে। এই অন পেজ এসইও উপাদানগুলিতে সামগ্রী উপাদানসমূহ, সাইট আর্কিটেকচার উপাদান এবং এইচটিএমএল উপাদানগুলি অন্তর্ভুক্ত রয়েছে।
গুগলের অ্যালগরিদম আপনার ওয়েবসাইটকে প্রধানত তিনটি কারণের উপর ভিত্তি করে: অন পেজ এসইও, অফ-পেইজ এসইও এবং প্রযুক্তিগত এসইও:
  • আমরা নীচে অন-পেজ এসইও উপাদানগুলি কভার করব।
  • অফ-পেজ এসইও সামাজিক ভাগ করে নেওয়া, বাহ্যিক সংযোগ এবং আরও অনেক কিছু বোঝায়।
  • প্রযুক্তিগত এসইও সমস্ত এসইও উপাদানগুলিকে নির্দেশ করে যা অন-পেজ এবং অফ-পৃষ্ঠা অনুশীলনে যেমন স্ট্রাকচার্ড ডেটা, সাইটের গতি এবং মোবাইল প্রস্তুতিতে অন্তর্ভুক্ত নেই - SEO এর আরও প্রযুক্তিগত অংশ

অন পেজ এসইও গুরুত্বপূর্ণ কেন?

অন পেজ এসইও গুরুত্বপূর্ণ কারণ এটি Google কে আপনার ওয়েবসাইট এবং আপনি কীভাবে দর্শক এবং গ্রাহকদের জন্য মূল্য প্রদান করে সে সম্পর্কে সমস্ত কিছু বলে। এটি আপনার সাইটকে মানুষের চোখ এবং সার্চ ইঞ্জিন বট উভয়ের জন্য অনুকূলিত করতে সহায়তা করে।
আপনার ওয়েবসাইটটি কেবল তৈরি করা এবং প্রকাশ করা যথেষ্ট নয় - নতুন ট্র্যাফিককে র্যাঙ্ক এবং আকর্ষণ করার জন্য আপনাকে অবশ্যই এটি গুগল এবং অন্যান্য অনুসন্ধান ইঞ্জিনগুলির জন্য অপ্টিমাইজ করতে হবে।
অন পৃষ্ঠায় এসইও বলা হয় "অন পৃষ্ঠায়" কারণ আপনার ওয়েবসাইটটি অনুকূলকরণের জন্য আপনার করা টুইটগুলি এবং পরিবর্তনগুলি আপনার পৃষ্ঠায় দর্শনার্থীরা দেখতে পাবেন (যেখানে অফ-পেজ এবং প্রযুক্তিগত এসইও উপাদানগুলি সর্বদা দৃশ্যমান থাকে না)
অন পৃষ্ঠায় এসইওর প্রতিটি অংশ পুরোপুরি আপনার উপর নির্ভর করে; এই কারণেই এটি গুরুত্বপূর্ণ যে আপনি এটি সঠিকভাবে করেন। এখন, অন-পেজ SEO এর উপাদানগুলি নিয়ে আলোচনা করা যাক।

অন পৃষ্ঠায় এসইও উপাদানসমূহ: 
  • উচ্চমানের পৃষ্ঠা সামগ্রী
  • পেজ শিরোনাম
  • শিরোলেখ
  • মেটা বর্ণনা
  • চিত্র Alt-পাঠ্য
  • কাঠামোগত মার্কআপ
  • পৃষ্ঠা ইউআরএল
  • অভ্যন্তরীণ সংযোগ
  • মোবাইল প্রতিক্রিয়া
  • সাইটের গতি
সমস্ত অন-পেজ এসইও উপাদানগুলি তিনটি প্রধান বিভাগে পড়ে:
  • সামগ্রী উপাদান
  • এইচটিএমএল উপাদানসমূহ
  • সাইট আর্কিটেকচার উপাদান

সামগ্রী উপাদানসমূহ:

সামগ্রী উপাদানগুলি আপনার সাইটের অনুলিপি এবং সামগ্রীতে থাকা উপাদানগুলিকে উল্লেখ করে। এই বিভাগে, আমরা বেশিরভাগ উচ্চ মানের পৃষ্ঠাগুলি তৈরিতে ফোকাস করব যা আপনার দর্শকদের উপকার করে এবং Google কে বলে যে আপনার ওয়েবসাইটের মান সরবরাহ করে।

উচ্চমানের পৃষ্ঠা সামগ্রী:

পৃষ্ঠাগুলি ' অন-পৃষ্ঠা এসইও এর হৃদয়। এটি অনুসন্ধান ওয়েবসাইট এবং পাঠকদের উভয়কেই বলে দেয় যে আপনার ওয়েবসাইট এবং ব্যবসা কী এবং আপনি কীভাবে সহায়তা করতে পারেন।

উচ্চ-মানের সামগ্রী তৈরির প্রথম পদক্ষেপটি প্রাসঙ্গিক কীওয়ার্ড এবং বিষয়গুলি নির্বাচন করা। পদগুলির জন্য গুগল অনুসন্ধান করে এবং প্রতিযোগীদের এবং অন্যান্য ওয়েবসাইটগুলির জন্য কী পৃষ্ঠতল তা দেখে কীওয়ার্ড গবেষণা পরিচালনা করুন। আপনি আহেফস , উত্তরপত্রিকা এবং উবারসাগস্টের মতো সরঞ্জামগুলিও ব্যবহার করতে পারেন।

এছাড়াও, SEO এর কীওয়ার্ড গবেষণা কীভাবে করবেন সে সম্পর্কে আমাদের শিক্ষানবিশ গাইডটি পড়ুন।

এরপরে, বিবেচনা করুন যে কীভাবে আপনার পৃষ্ঠাগুলি ক্রেতার ভ্রমণের এবং দর্শকদের অনুসন্ধানের উদ্দেশ্যে আসে। এটি আপনার কীওয়ার্ডগুলি কীভাবে ব্যবহার করবেন এবং কী ধরণের সামগ্রী তৈরি করবেন তা প্রভাবিত করবে
এইচটিএমএল উপাদানসমূহ

এইচটিএমএল উপাদানগুলি আপনার উত্স কোডের উপাদানগুলিকে উল্লেখ করে। দ্রষ্টব্য: আপনার ব্রাউজারে যে কোনও পৃষ্ঠার উত্স কোড দেখতে, শীর্ষ মেনুতে View> বিকাশকারী> উত্স দেখুন ক্লিক করুন।

পৃষ্ঠার শিরোনাম:

আপনার ওয়েবসাইট পৃষ্ঠার শিরোনাম ( শিরোনাম ট্যাগ হিসাবেও পরিচিত) অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ এসইও উপাদান।

অন-পৃষ্ঠা-এসইও পৃষ্ঠার-টাইটেল-ট্যাগ:

শিরোনামগুলি উভয় দর্শকদের এবং অনুসন্ধান ইঞ্জিনগুলিকে অনুরূপ পৃষ্ঠাগুলিতে কী খুঁজে পেতে পারে তা জানায়।

যথাযথ উদ্দেশ্যে আপনার সাইটের পৃষ্ঠাগুলি র‌্যাঙ্কটি নিশ্চিত করতে শিরোনামে প্রতিটি পৃষ্ঠার ফোকাস কীওয়ার্ডটি অন্তর্ভুক্ত করার বিষয়ে নিশ্চিত হন। আপনার কীওয়ার্ডটি যথাসম্ভব প্রাকৃতিকভাবে অন্তর্ভুক্ত করুন।

পৃষ্ঠার শিরোনাম বিকাশের জন্য এখানে কয়েকটি সেরা অনুশীলন রয়েছে:

 এটিকে 70 টি অক্ষরের ( Google এর সর্বশেষ আপডেটের ) অধীনে রাখুন ... আর আর আপনার শিরোনাম অনুসন্ধান ফলাফলগুলিতে কেটে দেওয়া হবে। মোবাইল অনুসন্ধান ফলাফলগুলি 78 টি অক্ষর পর্যন্ত দেখায়।
 কীওয়ার্ড সহ শিরোনামটি স্টাফ করবেন না। কীওয়ার্ড-স্টাফিং কেবল স্প্যামি এবং কড়া পড়ার অভিজ্ঞতা উপস্থাপন করে তা নয়, আধুনিক অনুসন্ধান ইঞ্জিনগুলি আগের চেয়ে বেশি স্মার্ট। এগুলি কীওয়ার্ডগুলিতে অপ্রাকৃতভাবে ভরাট সামগ্রীর জন্য (এবং শাস্তি দেওয়ার জন্য) বিশেষভাবে নিরীক্ষণের জন্য ডিজাইন করা হয়েছে।
 এটি পৃষ্ঠার সাথে প্রাসঙ্গিক করুন।
 সমস্ত ক্যাপ ব্যবহার করবেন না।
 আপনার ব্র্যান্ডটিকে শিরোনামে অন্তর্ভুক্ত করুন, যেমন " 2019 সালে অন পেজ এসইও - হবস্পট ব্লগের আলটিমেট গাইড "।
কার্যকর পৃষ্ঠা শিরোনাম লেখার জন্য আমাদের ফ্রি ডেটা-চালিত গাইড দেখুন Check

শিরোলেখ:

শিরোনামগুলি, বডি ট্যাগ হিসাবেও পরিচিত, এইচটিএমএল উপাদান <h1>, <h2>, <h3> এবং আরও উল্লেখ করে।

অন-পৃষ্ঠা-এসইও-হেডার:

এই ট্যাগগুলি আপনার সামগ্রী পাঠকদের জন্য সংগঠিত করতে এবং অনুসন্ধানের ইঞ্জিনগুলিকে অনুসন্ধানের অভিপ্রায় অনুসারে আপনার সামগ্রীর কোন অংশটি সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ এবং প্রাসঙ্গিক তা আলাদা করতে সহায়তা করে।

আপনার শিরোনামে গুরুত্বপূর্ণ কীওয়ার্ডগুলি অন্তর্ভুক্ত করুন তবে আপনার পৃষ্ঠার শিরোনামের চেয়ে আলাদা কী নির্বাচন করুন। আপনার সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ কীওয়ার্ডগুলি আপনার <h1> এবং <h2> শিরোনামে রাখুন Put

মেটা বর্ণনা:

মেটা বিবরণগুলি সংক্ষিপ্ত পৃষ্ঠার বিবরণ যা অনুসন্ধান ফলাফলের শিরোনামের অধীনে উপস্থিত হয়। যদিও এটি অনুসন্ধান ইঞ্জিনগুলির জন্য অফিসিয়াল র‌্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর নয়, এটি আপনার পৃষ্ঠায় ক্লিক করা আছে কি না তা প্রভাব ফেলতে পারে - সুতরাং, অন-পৃষ্ঠা এসইও করার সময় এটি ঠিক ততটাই গুরুত্বপূর্ণ।

অন-পৃষ্ঠা-এসইও-মেটা-বিবরণ:

আপনার বিষয়বস্তু ভাগ করার সময় মেটা বিবরণগুলি সোশ্যাল মিডিয়ায়ও অনুলিপি করা যেতে পারে ( কাঠামোগত মার্কআপ ব্যবহার করে , যা আমরা নীচে আলোচনা করি ), যাতে এটি সেখান থেকে ক্লিক-মাধ্যমেও উত্সাহিত করতে পারে।

এখানে একটি ভাল মেটা বিবরণ তৈরি করে :

 এটিকে 160 টি অক্ষরের নীচে রাখুন, যদিও গুগল 220 অক্ষর পর্যন্ত - দীর্ঘ মেটা বিবরণ মঞ্জুর করতে জানা গেছে । ( দ্রষ্টব্য : মোবাইল ডিভাইসগুলি 120 টি অক্ষরে মেটা বিবরণ কেটে দেয়))
 আপনার সম্পূর্ণ কীওয়ার্ড বা কীওয়ার্ড বাক্যাংশ অন্তর্ভুক্ত করুন।
 একটি সম্পূর্ণ, বাধ্যমূলক বাক্য (বা দুটি) ব্যবহার করুন।
 -, এবং, বা + এর মতো বর্ণমালা অক্ষরগুলি এড়িয়ে চলুন।
চিত্র Alt-পাঠ্য
চিত্র Alt-পাঠ্য আপনার চিত্রগুলির জন্য এসইওর মতো। এটি গুগল এবং অন্যান্য অনুসন্ধান ইঞ্জিনগুলিকে আপনার চিত্রগুলি সম্পর্কে যা বলে ... যা গুরুত্বপূর্ণ কারণ Google এখন প্রায় চিত্র-ভিত্তিক ফলাফল যেমন পাঠ্য-ভিত্তিক ফলাফলগুলি সরবরাহ করে তাই সরবরাহ করে।

এর অর্থ গ্রাহকরা আপনার চিত্রগুলির মাধ্যমে আপনার সাইটটি আবিষ্কার করতে পারেন। তাদের এটি করার জন্য, যদিও আপনাকে নিজের ছবিতে ওয়েল-টেক্সট যুক্ত করতে হবে।

চিত্র Alt-পাঠ্য যোগ করার সময় কী মনে রাখা উচিত তা এখানে:

  •  এটি বর্ণনামূলক এবং নির্দিষ্ট করুন।
  •  এটিকে প্রসারিত পৃষ্ঠাগুলির সাথে প্রাসঙ্গিকভাবে প্রাসঙ্গিক করুন।
  •  এটি 125 টি অক্ষরের চেয়ে কম রাখুন।
  •  অল্প পরিমাণে কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন, এবং কীওয়ার্ড স্টাফ করবেন না। কাঠামোগত মার্কআপ স্ট্রাকচার্ড মার্কআপ বা স্ট্রাকচার্ড ডেটা হ'ল গুগলকে আপনার সামগ্রীর বিভিন্ন উপাদান খুঁজে পেতে ও বুঝতে সহজ করার জন্য আপনার ওয়েবসাইট উত্স কোডটি "মার্কআপ" করার প্রক্রিয়া।


গুগলে কোনও কিছুর সন্ধান করার সময় স্ট্রাকচার্ড মার্কআপ হ'ল বৈশিষ্ট্যযুক্ত স্নিপেটস, জ্ঞান প্যানেলগুলি এবং আপনি যে সামগ্রীগুলি দেখেন সেগুলির পিছনের মূল কী। কেউ আপনার মিডিয়াতে আপনার সামগ্রী ভাগ করে নেওয়ার সময় আপনার নির্দিষ্ট পৃষ্ঠার তথ্যটি কীভাবে ঝরঝরে দেখা যায় ।

দ্রষ্টব্য : কাঠামোগত ডেটা প্রযুক্তিগত এসইও হিসাবে বিবেচনা করা হয়, তবে আমি এটি এখানেই অন্তর্ভুক্ত করছি কারণ এটি অনুকূলিতকরণ দর্শকদের জন্য আরও ভাল অন-পৃষ্ঠার অভিজ্ঞতা তৈরি করে।

অন-পৃষ্ঠা-এসইও-কাঠামোবদ্ধ-মার্কআপ
সাইট আর্কিটেকচার উপাদানসমূহ
সাইট আর্কিটেকচার উপাদানগুলি আপনার ওয়েবসাইট এবং সাইট পৃষ্ঠা তৈরির উপাদানগুলিকে বোঝায়। আপনি কীভাবে আপনার ওয়েবসাইটটি কাঠামো করেন তা গুগল এবং অন্যান্য অনুসন্ধান ইঞ্জিনগুলিকে সহজেই পৃষ্ঠা এবং পৃষ্ঠার সামগ্রী ক্রল করতে সহায়তা করতে পারে।

পৃষ্ঠা ইউআরএল:

আপনার পৃষ্ঠার ইউআরএলগুলি পাঠক এবং অনুসন্ধান ইঞ্জিন উভয়ের পক্ষে হজম করার পক্ষে সহজ হওয়া উচিত। আপনি সাবপেজ, ব্লগ পোস্ট এবং অন্যান্য ধরণের অভ্যন্তরীণ পৃষ্ঠাগুলি তৈরি করার সাথে সাথে আপনার সাইটের শ্রেণিবিন্যাসকে সামঞ্জস্য রেখে তাও গুরুত্বপূর্ণ important

অন-পৃষ্ঠা-এসইও পৃষ্ঠার-URL:

উদাহরণস্বরূপ, উপরের ইউআরএলে, "ব্লগ" হ'ল সাব-ডোমেন, "হাবস্পট.কম" হল ডোমেন, "বিক্রয়" হাবস্পট বিক্রয় ব্লগের ডিরেক্টরি এবং "স্টার্টআপস" সেই ব্লগ পোস্টের নির্দিষ্ট পথ নির্দেশ করে indicates ।

এসইও-বান্ধব ইউআরএল কীভাবে লিখবেন সে সম্পর্কে এখানে কয়েকটি টিপস দেওয়া হয়েছে:

 অতিরিক্ত, অপ্রয়োজনীয় শব্দগুলি সরান।
 কেবল একটি বা দুটি কীওয়ার্ড ব্যবহার করুন।
 সম্ভব হলে HTTPS ব্যবহার করুন, গুগল এখন এটি ইতিবাচক র‌্যাঙ্কিং ফ্যাক্টর হিসাবে ব্যবহার করে।
অভ্যন্তরীণ সংযোগ
অভ্যন্তরীণ সংযোগ আপনার ওয়েবসাইটের অন্যান্য সহায়ক পৃষ্ঠাগুলিতে হাইপার লিঙ্ক করার প্রক্রিয়া। (দেখুন "অভ্যন্তরীণ সংযোগ" শব্দগুলি উপরের বাক্যটিতে অন্য হাবস্পট ব্লগ পোস্টের সাথে কীভাবে যুক্ত হয়েছে? এটি একটি উদাহরণ।)

অভ্যন্তরীণ লিঙ্কটি অন-পৃষ্ঠার এসইওর জন্য গুরুত্বপূর্ণ কারণ অভ্যন্তরীণ লিঙ্কগুলি পাঠকদের আপনার ওয়েবসাইটের অন্য পৃষ্ঠাগুলিতে প্রেরণ করে, এগুলি প্রায় দীর্ঘ রাখে এবং এভাবে গুগলকে আপনার সাইটের কথা বলা মূল্যবান এবং সহায়ক। এছাড়াও, আপনার ওয়েবসাইটটিতে যত বেশি দর্শক থাকবেন, তত বেশি সময় গুগলকে আপনার সাইটের পৃষ্ঠাগুলি ক্রল করতে এবং সূচী করতে হয়। এটি শেষ পর্যন্ত গুগলকে আপনার ওয়েবসাইট সম্পর্কে আরও তথ্য শোষণ করতে সহায়তা করে এবং সম্ভাব্যভাবে অনুসন্ধান ইঞ্জিনের ফলাফল পৃষ্ঠাগুলিতে উচ্চতর স্থান দেয়।

SEO এর জন্য অভ্যন্তরীণ সংযোগের জন্য আমাদের ফ্রি গাইডটি ডাউনলোড করুন।

মোবাইল প্রতিক্রিয়া:

আপনি কি গত এক বছরে জানতেন, গুগল দ্রুত মোবাইল গতির জন্য এমনকি ডেস্কটপ অনুসন্ধানের জন্যও অনুকূলিত সাইটগুলির পক্ষে শুরু করেছে ? মোবাইল প্রতিক্রিয়াশীলতার বিষয়টি গুরুত্বপূর্ণ।

একটি ওয়েবসাইট হোস্টিং পরিষেবা, সাইট ডিজাইন এবং থিম এবং মোবাইল ডিভাইসে পাঠযোগ্য এবং নাব্যযোগ্য সামগ্রী কনফিগারেশন নির্বাচন করা সমালোচনাযোগ্য। আপনি যদি নিজের সাইটের মোবাইল প্রস্তুতি সম্পর্কে নিশ্চিত না হন তবে গুগলের মোবাইল-বান্ধব পরীক্ষার সরঞ্জামটি ব্যবহার করুন ।

সাইটের গতি:

কোনও মোবাইল ডিভাইস বা ডেস্কটপে দেখা হচ্ছে না কেন, আপনার সাইটটি অবশ্যই দ্রুত লোড করতে সক্ষম হবে। অন ​​পৃষ্ঠায় এসইও এলে পৃষ্ঠার গতি বড়-সময় গণনা করে।

গুগল প্রথম এবং সর্বাগ্রে ব্যবহারকারীর অভিজ্ঞতা সম্পর্কে যত্নশীল। যদি আপনার সাইটটি আস্তে আস্তে বা উদ্বেগজনকভাবে লোড হয়, সম্ভবত আপনার দর্শনার্থীরা এটি ঘিরে রাখবেন না - এবং গুগল তা জানে। তদুপরি, সাইটের গতি রূপান্তরগুলি এবং আরওআইকে প্রভাবিত করতে পারে।

গুগলের পেজস্পিড ইনসাইটস সরঞ্জামটি ব্যবহার করে যে কোনও সময় আপনার ওয়েবসাইটের গতি পরীক্ষা করুন। যদি আপনার ওয়েবসাইটটি ধীর গতিতে থাকে তবে আপনার ওয়েবসাইটের পৃষ্ঠা লোডিং গতি হ্রাস করতে সহায়তা করার জন্য 5 টি সহজ উপায় পরীক্ষা করে দেখুন ।

দ্রষ্টব্য : মোবাইল প্রতিক্রিয়াশীলতা এবং সাইটের গতি প্রযুক্তিগত এসইও হিসাবে বিবেচনা করা হয়, তবে আমি তাদের এখানে অন্তর্ভুক্ত করছি কারণ সেগুলি অপ্টিমাইজ করা দর্শকদের জন্য আরও ভাল অন-পৃষ্ঠার অভিজ্ঞতা তৈরি করে।

এখন আপনি অন-পৃষ্ঠার এসইও উপাদানগুলি বুঝতে পারছেন, আসুন আপনার অন-পৃষ্ঠা এসইওর নিরীক্ষণ এবং উন্নত করার পদক্ষেপগুলির মাধ্যমে কথা বলুন।